গুগল ডুডল | কীভাবে এটি কাজ করে|

#

গুগল ডুডল | কীভাবে এটি কাজ করে|

Ahmed Parbes

গুগল ডুডল এর নাম কি কখনো শুনেছেন? আর যদি শুনে থাকেন তাহলে গুগল ডুডলের কার্যাদি সম্পর্কে আপনি কি জানেন?

গুগল ডুডল আসলে কি কারনে তৈরি করেছে এবং এটির কাজ আসলে কি? আপনি যদি এই সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য সম্পর্কে জানতে চান তাহলে এই পোস্টটি একদম শেষ পর্যন্ত দেখুন।

গুগল ডুডল কি? 


গুগল ডুডল হলো এমন একটি গুগলে ডিজাইনকৃত ওয়েবসাইট এখানে সাধারণত বিভিন্ন স্মরণীয় ব্যক্তিদের মৃত্যুবার্ষিকীতে এবং জন্মবার্ষিকীতে তাদেরকে স্মরণ করা হয়।

এটা হল এমন এক ধরনের প্লাটফর্ম, যেখানে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির মৃত্যুবার্ষিকীতে এবং জন্মবার্ষিকীতে তার ছবি সহ সমস্ত কার্যকলাপের কথা উল্লেখ করা হয়।

যা দেখে আমরা আসলে আরেকবার ঐ ব্যক্তিটি কে স্মরণ করতে পারি।

গুগলের প্রথম দুটো যুক্ত হয় 1998 সালের বার্নিং ম্যান ফেস্টিভ্যালের দিন, যা প্রথমত ডিজাইন করেছিলেন গুগলের সুনামধন্য প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেইজ, সের্গেই ব্রিন।

এছাড়াও 2010 সালে স্যার আইজ্যাক নিউটনের মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁকে স্মরণ এর জন্য গুগল ডুডল প্রথম এনিমেটেড যুক্ত করে, মূলত এখান থেকে এর যাত্রা শুরু হয়।

শুধুমাত্র এটি ব্যবহার পরিলক্ষিত হয় বিশেষ কোন দিনে যে দিনটিকে গুগল সবার মধ্যে ভালোভাবে স্মরণ করিয়ে দিতে যায়, এবং এই দিনে পর্যালোচনা সবার কাছে উল্লেখ করে যাতে করে সবাই এদিনটি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতে পারে এবং বিভিন্ন কার্য দিবস পালন করতে পারে।

বাংলাদেশের কোন কার্যক্রম কি গুগল ডুডলে প্রকাশ পায়?


বাংলাদেশের প্রায় প্রত্যেকটি স্মরণীয় দিন এই গুগল ডুডল অ্যানিমেশনের সাথে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে ফুটিয়ে তুলে ধরে। 

এতে করে বিশ্বের যেকোন প্রান্তে থাকা যেকোনো ব্যক্তি যখন গুগলে  প্রবেশ করে তখন এই সম্পর্কে অবহিত হতে পারে যে আজকে বাংলাদেশ একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন হতে চলেছে।

শুধু তা নয় বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের স্মরণীয় ব্যক্তি বর্গের সম্মানার্থে গুগল ডুডল তাদের জন্মবার্ষিকীতে এবং মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন ধরনের এ্যানিমেশন যুক্ত করে এবং এগুলোকে স্মরণ করার চেষ্টা করে।

এ প্ল্যাটফর্মটিতে ব্যবহৃত যে দিবসগুলোকে সবচেয়ে বেশি তুলে ধরা হয় সেগুলো হলো।

▪ বাংলা নববর্ষ।
▪ লিপ ইয়ার।
▪ মহান স্বাধীনতা দিবস।
▪ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।
▪ বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী এবং মৃত্যু বার্ষিকী।
▪ এছাড়াও আরও বিভিন্ন ধরনের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের কথা এখানে তুলে ধরা হয়।

বিশেষ করে বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের দিবস যেগুলো সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য এবং অন্যতম যেমন বাংলা নববর্ষ মহান স্বাধীনতা দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সহ আরও বিভিন্ন ধরনের দিবস এর দিনে গুগল ডুডল এনিমেশন গুলো প্রকাশ করে।

যা দেখে বিশ্বের যেকোন প্রান্তে থাকা ব্যক্তিবর্গ অন্যরকম প্রফুল্লতা অনুভব করে, এছাড়াও বাঙালি হিসেবে নিজেকে ধন্য মনে হয়।

গুগোল ডুডল গেমসঃ


আপনি চাইলে গুগল ডুডলস সহযোগিতায় বিভিন্ন ধরনের জনপ্রিয় গেমস খেলতে পারবেন, এ গেমসগুলো সাধারণত পূর্বের স্মৃতি গুলোকে বারবার মনে করিয়ে দেয়।

এই গেমগুলো তৈরি করার দিনে এগুলো গুগোল খুব ভালোভাবে প্রকাশ করে, এবং আপনি যখন গুগল ডুডল লিখে সার্চ করেন, তখনই আপনি অনলাইনের মাধ্যমে এই পুরনো গেমগুলোকে খুব সহজেই খেলতে পারেন।

গুগল ডুডল | কীভাবে এটি কাজ করে|


আপনি যদি পুরনো গেম খেলতে ভালবাসেন এবং পুরনো গেমগুলো খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেন তাহলে এই প্লাটফর্ম ব্যবহার করার মাধ্যমে তা সহজেই করতে পারেন।

গুগল ডুডল এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটঃ


আপনি যদি এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন তাহলে খুব সহজেই বিভিন্ন ধরনের নেক্সট এনিমেশন সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।



এক্ষেত্রে প্রথমে উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন এবং তারপরে গুগলের বিভিন্ন ধরনের লেটেস্ট আপডেট সম্পর্কে সর্বশেষ অভিহিত হন।

এই সপ্তাহে সেরা~